in

বাঙালীর বিয়ের যত কথা।

বিয়ে মানে দুই মানুষের এক হওয়া বন্ধন। সারা জীবন এক ছাদের নিচে বসবাস। বিয়ে মানেই পুর অনুষ্ঠান জুড়ে শাজ শাজ একটা রব। তবে বর্তমানে বলা চলে বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ হয়েছে বিভিন্ন মাত্রা। গায়ের হলুদের আয়োজনেও এসেছে ভিন্নতা। আমাদের দেশে সাধারণত বর আর কনের গায়ে হলুদের আয়োজন আলাদা ভাবে হয়ে থাকলেও ইদানিংকালে একসাথেই আয়োজিত হচ্ছে বর ও কনের গায়ে হলুদ।বাংলাদেশী বিয়ের সবথেকে রঙিন এবং জাকজমকপূর্ণ হয়ে থাকে গায়ে হলুদের অংশ। এই অনুষ্ঠানে তাই বর আর কনের সাজও হওয়া চাই একদমই অসাধারণ। আজকের পোস্টে সেটা নিয়েই আলোচনা করছি।

#1 কনের সাজসজ্জা

গায়ে হলুদের কনের সাজ

একটা সময় ছিল যখন গায়ে হলুদের সাজ মানেই কনের হলুদ রঙের শাড়ি আর বরের সাদা রঙের পাঞ্জাবি। কিন্তু এখন যুগ বদলেছে, সাথে বদলেছে ফ্যাশনের রুচিও। আজকালকার কনেরা গায়ে হলুদে কেবলমাত্র হলুদই নয়, লাল, খয়েরি, সবুজ, এমনকি সাদা রঙের শাড়িও পড়ে থাকেন। আর সাজগোজের জন্য কাঁচা ফুল এবং প্লাস্টিকের ফুল উভয়ই ব্যবহার করা হয়। মেটালের অলংকারের ওপরও ফুল দিয়ে সাজেন অনেকে।

#2 গায়ে হলুদে কনের লাল রঙের শাড়ি

হলুদের শাড়ির ক্ষেত্রে কটন শাড়ির ব্যবহারই সবথেকে বেশি দেখা যায় সাধারণত, তবে হাফ সিল্ক, সিল্ক কাতান অথবা জামদানিও পড়েন অনেকেই। গায়ে হলুদের জন্য অবশ্য হালকা কাজের শাড়িই ভালো। সাধারণ বাঙ্গালী সাজেই গায়ে হলুদের শাড়ি পড়া উচিত।

#4 বরের গায়ে হলুদ সাজ

অনেক আগে থেকেই গায়ে হলুদে জামাই এর প্রধাণ পোশাক হচ্ছে পাঞ্জাবি। সুতি, সিল্ক অথবা হাফ সিল্কের পাঞ্জাবিই গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে বেশি দেখা যায়। 

#5 গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে পাঞ্জাবিই বেশি ব্যবহৃত হয়

পাঞ্জাবিই গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে বেশি ব্যবহৃত হয়। আরেকটি বিশেষ দিকে খেয়াল রাখতে হবে পাঞ্জাবির রঙ নির্ধারণ করা উচিত বরের গায়ের রঙ, মুখের গড়ন ইত্যাদির ওপর নির্ভর করে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই হলুদের অনুষ্ঠানে বর এবং বরপক্ষের ছেলেরা হলুদ, লাল, সাদা অথবা বেগুনী রঙের পাঞ্জাবি পড়ে থাকেন।

অনাইলিনে ও এক্ষণ গায়ে হলুদে পাঞ্জাবির বুকিং নেওয়া হচ্ছে।  এই লিঙ্ক এ যেয়ে আপনি দারুন দারুন সব পাঞ্জাবির অর্ডার করতে পারেন। www.facebook.com/qwrecom

#6 বর কনের জুতা

বিয়ের অনুষ্ঠানে সাজসজ্জা ও পোশাকের পাশাপাশি আরেকটি জরুরী বিষয় হলো প্রয়োজন হলো জুতা। বর-কনে উভয়ের জুতা হতে হবে অনুষ্ঠানের উপযোগী। অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে জুতাগুলো জেনো আরামদায়ক হয়। কনে শাড়ি বা লেহেঙ্গার সাথে উঁচু হিল পরতে পারে। আর বরের জন্য বিয়েতে পাঞ্জাবির সাথে নাগরা মানানসই হতে পারে। বউভাতে স্যুট প্যান্টের সঙ্গে পরতে পারেন জুতা। এক্ষেত্রে জুতার রং স্যুট-প্যান্টের বিপরীত রং হলে ভালো হয়।

#9 মেক-আপের উপকরণ কোথায় পাওয়া যাবে

প্রসাধনী বিষয় বলতে গেলে রঙধনু মার্কেট, মিরপুর সারে ১১তে, মিরপুর পল্লবী প্লাজা, বসুন্ধরা সিটি, যমুনা ফিউচার পার্ক, নাভানা টাওয়ার, বনানী মৈত্রী শপিং কমপ্লেক্স,  গুলশানের প্যারিস পারফিউম, পারফিউম ওয়ার্ল্ড, বেইলি রোডের স্টার ডাস্ট ও স্টার ওয়ার্ল্ড, পিঙ্ক সিটিতে পাওয়া যাবে ব্র্যান্ডেড এবং নন-ব্র্যান্ডেড পারফিউম, মেকআপ ও কসমেটিক। এছাড়া অনলাইনের বিভিন্ন ওয়েবসাইট এবং বিয়ে বাজার থেকে কিনে নিতে পারেন এগুলো।

#10 শেরওয়ানি

বিয়ের বরের সাজ একেবারেই অপূর্ণ রয়ে যায় শেরওয়ানী ছাড়া । বর্তমান সময়ে এর চাহিদাও তাই তরুণদের কাছে অনেক। যেহেতু জীবনে প্রথমবার এই পোশাকটি পড়ছেন। তাই ভাল শেরওয়ানী বাছাই করুন আপনার গায়ের রঙের সাথে মিলিয়ে।

#11 বিয়ের অনুষ্ঠান হোক সুগন্ধি

বিয়েতে সুগন্ধির জুরি নেই, আপনার পছন্দের পারফিউম ব্যাবহার করতে পারেন। অনেকে আতর ব্যাবহার করে থাকেন। এই পারফিউমের সুগন্ধি আপনাকে করে তুলবে আরো আকর্ষণীয় করে তুলবে।

This post was created with our nice and easy submission form. Create your post!

What do you think?

Written by Azaher Ali Rajib

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading…

0

সংখ্যা দিয়ে যেভাবে মানুষের মন বোঝা যাবে।

ট্রোলকারিরা যাই বলুক, প্রিয়াঙ্কাকে ট্রল করায় উনার মা গর্ভীত!!!