in

প্লাজমা অনুমোদন দিলো মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন (এফডিএ) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় রক্তের প্লাজমা ব্যবহারের জরুরি অনুমোদন দিয়েছে । এই চিকিৎসা পদ্ধতিতে করোনা থেকে সুস্থ হওয়া ব্যক্তিদের অ্যান্টিবডি সমৃদ্ধ রক্তের প্লাজমা দেওয়া হয় রোগীদের দেহে। দেশটিতে এরই মধ্যে ৭০ হাজারের বেশি মানুষকে এই পদ্ধতিতে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জানান, এই চিকিৎসায় ৩৫ শতাংশ মৃত্যু কমিয়ে আনা সম্ভব। রাজনৈতিক কারণে করোনার টিকা তৈরি ও অন্য সম্ভাব্য ওষুধ প্রয়োগে এফডিএ বাধা দিচ্ছে, ট্রাম্পের এমন অভিযোগের একদিন পরই ওষুধ প্রশাসন প্লাজমা ব্যবহারের অনুমোদন দিলো।

এফডিএর এই সিদ্ধান্তের পরপরই ট্রাম্প বলেছেন, ‘আসলে আমি অনেকদিন ধরে এমন কিছুর অপেক্ষায় ছিলাম আমি। অগণিত জীবন কেড়ে নেওয়া চীনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধকালে একটি সত্যিকারের ঐতিহাসিক ঘোষণায় আমি আনন্দিত।’

এই চিকিৎসাকে শক্তিশালী হিসেবে বর্ণনা করেছেন ট্রাম্প এবং কোভিড থেকে সেরে ওঠা আমেরিকানদের প্লাজমা দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

গত কয়েক মাস ধরে সংগৃহীত উপাত্তের বিশদ বিশ্লেষণ করে করোনার চিকিৎসায় প্লাজমাকে নিরাপদ বলে চূড়ান্ত ঘোষণা দিয়েছে এফডিএ। এতে কোনও ধরনের ঝুঁকি নেই উল্লেখ করে তারা বলেছে, ‘প্লাজমা ব্যবহার করা নিরাপদ এবং আমরা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করছি। এটি ব্যবহারে আমরা কোনও ঝুঁকির আশঙ্কা দেখিনি।’

আগের একটি গবেষণায় এফডিএ বলেছিল, হাসপাতালে ভর্তির প্রথম তিনদিনের মধ্যে প্লাজমা ব্যবহার করলে রোগীর স্বাস্থ্যের উন্নতি হয় এবং মৃত্যুর হারও কমিয়ে দেয়।

This post was created with our nice and easy submission form. Create your post!

What do you think?

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading…

0

হিজরি সাল কীভাবে এলো?

আবারও বড় ধরনের ডেটা ফাঁস!!!